“সূর্য সেন টু ড: অনুপম সেন”

0
199

চেতনা ডেস্ক: “সূর্য সেন টু ড: অনুপম সেন” শিরোনামে নির্মিতব্য নিখিল ভারত এর এক চিলতে ধলঘাট ডকুমেন্টারীর পুরোধা ! এই মহান ব্যক্তিত্ব সম্পর্কে আমার অভিভাবক কবি ও প্রাবন্ধিক জনাব রবিন ঘোষ এর ফেইসবুক ওয়াল থেকে তুলে ধরা হলো।

ড: অনুপম সেন। আন্তর্জাতিকভাবে সুখ্যাত সমাজবিজ্ঞানী। বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির প্রাক্তন সভাপতি। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য।বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ উপকমিটির প্রাক্তন চেয়ারম্যান। প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য। একুশ পদক প্রাপ্ত বিদগ্ধ শিক্ষাবিদ।

সম্প্রতি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দফতর উপকমিটির চেয়ারম্যান মনোনীত হয়েছেন। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক এই মনোনয়ন ড: অনুপম সেনের অষ্টাদশ জন্মসনে একটি অসাধারণ ঘটনা। প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের চট্টগ্রামের সাংগঠনিক দায়িত্ব প্রাপ্ত বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দফতর বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিষ্টার বিপ্লব বড়ুয়ার পেজে সংবাদটি দেখার পর থেকে চট্টগ্রামের বিভিন্ন মহল অভিনন্দিত করছেন।

ড: অনুপম সেনের নিজ গ্রাম পটিয়া থানার ধলঘাট আনন্দে ভাসছে। ১৯৪০ সালে পাঁচ আগস্ট জন্ম তাঁর।প্রথম শৈশব কেটেছে চট্টগ্রাম শহরের আইসফ্যাক্টরী রোডে। কিন্তু যুদ্ধের অবস্থা ক্রমশ তীব্র হয়ে উঠলে জাপানীরা মায়ানমারে পা রাখার সংবাদ ছড়িয়ে পড়ার সাথে সাথে পিতা এডভোকেট বীরেন্দ্র সেনের হাত ধরে তাঁদের পুরো পরিবার চলে আসে গ্রামে। ধলঘাট ইংরেজি স্কুলে ই তাঁর লেখাপড়ায় হাতে খড়ি। বিশ্বযুদ্ধের পরিসমাপ্তি ঘটলে আবার ফেরেন আইসফ্যাক্টরীর বাড়িতে। জীবনের বড়ো একটা সময় কাটান আইস ফ্যাক্টরী উত্তর নালাপাড়ায়।
তারপর থিতু হন কাজীর দেউরির ভি আই পি টাওয়ারের ফ্ল্যাটে।

আন্তর্জাতিক মহলে অতি সুপরিচিত এই শিক্ষাব্যক্তিত্ব ইচ্ছা করলেই বেছে নিতে পারতেন বিদেশের লোভনীয় জীবন। কিন্তু নাড়ির টানে জন্মভূমিকে আঁকড়ে পড়ে রয়েছেন। তাঁর লেখাগুলো পড়লে তাঁর সাথে আলাপচারিতায় যুক্ত হবার সুযোগ ঘটলে তাঁর বক্তৃতা শুনলে বোঝা যায় কি অসামান্য ভালবাসা আমার দেশের মৃত্তিকা ও মানুষের প্রতি।

ড:অনুপম সেন শ্রদ্ধাভাজনেষু আপনি আমাদের প্রীতি ও শুভেচ্ছা গ্রহন করুন। আমরা আপনার একনিষ্ঠ ভক্ত। আপনার প্রতিটি সাফল্যে প্রাপ্তিতে আমরা পুলকিত হই,আনন্দিত হই।আমরা আপনার প্রতি দেশবাসীর সকল অভিনন্দন এ সামিল হই। আপনি ভালো থাকুন। প্রার্থনা করি আরো বহু বছর আপনার প্রাজ্ঞতার সেবা যেন এই দেশ গ্রহন করতে সমর্থ হয়।

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি অপরিসীম কৃতজ্ঞতা সহজ সরল বিদগ্ধ চট্টগ্রামের সর্বজনপ্রিয় এই মানুষটিকে নানা ভাবে আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক কার্যক্রমে যুক্ত করে রাখার জন্য।
জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু।